প্রিন্টার কি ? প্রিন্টার এর কাজ কি? (what is printer in Bengali)

 আমরা কিন্তু প্রত্যেকেই প্রিন্টারের নাম শুনেছি । কম্পিউটার থেকে কোন নথি বা  তথ্য কাগজের উপর প্রিন্টারের মাধ্যমে প্রিন্ট করে বের করতে পারি। তো আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব কম্পিউটারের প্রিন্টার কি (printer kake bole) ? প্রিন্টার এর কাজ কি? প্রিন্টার এর ব্যবহার ? প্রিন্টার কয় প্রকার ও কি কি ? প্রিন্টার মেশিনের দাম কত ইত্যাদি বিষয়ে। 

প্রিন্টার কি ? প্রিন্টার এর কাজ কি?
what is printer in bangla

আর যদি এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়েন প্রিন্টার সম্পর্কে সমস্ত খুঁটিনাটি বিষয় জানতে পারবেন। চলুন তাহলে বেশি কথা না বলে প্রিন্টার কি উত্তর এই বিষয়টি জেনে নিই।

প্রিন্টার কি (what is printer in Bangla) ?

প্রিন্টার এমন এক ধরনের হার্ডওয়ার ডিভাইস যার দ্বারা কম্পিউটার স্ক্রিনে যে আউটপুট প্রদর্শিত হয় সেইগুলো কাগজের  উপর ছাপাতে পারি। 

যেকোনো ধরনের নথি যেমন টেক্সট, ফাইল, ছবি, ডকুমেন্ট ইত্যাদি জিনিস আমরা প্রিন্টারের মাধ্যমে কাগজের উপর প্রিন্ট করতে পারি।

প্রিন্টার কাকে বলে ?

 যে হার্ডওয়ার আউটপুট ডিভাইস যা হার্ডকপি তৈরি করতে এবং কম্পিউটার থেকে ডাটা বা আউটপুট গ্রহণ করে কাগজে তথ্য স্থানান্তর করে তাকে প্রিন্টার বলে।

 

 

প্রিন্টার কে আবিষ্কার করেন ?

প্রিন্টারের বিবর্তনের সময় বিভিন্ন ধরনের প্রিন্টার তৈরি হয়েছে হয়েছে সুতরাং প্রিন্টার আবিষ্কারে নির্দিষ্ট কোন উদ্ভাবক নেই। তবে সর্বপ্রথম জিনিস যান্ত্রিক মুদ্রা আবিষ্কার করেছিলেন তার নাম চার্লস ব্যাবেজ (Charles Babbage) তারাতরি ডিফেন্স ইঞ্জিনের (defence engine) মাধ্যমে ছাপার কাজ করা হতো

প্রিন্টার কয় প্রকার ও কি কি (types of printer in Bengali) : 

চলুন এবার প্রিন্টারের শ্রেণীবিভাগ গুলি নিচে বিস্তারিত আলোচনা করি।

প্রিন্টার কে প্রধানত দুটি ভাগে ভাগ করা হয় 

            1. Impact Printer

            2. Non-Impact Printer

1. ইমপ্যাক্ট প্রিন্টার  (Impact Printer) : 

এমন এক ধরনের প্রিন্টার যা কাগজের সাথে কালি ফিতের সরাসরি যোগের মাধ্যমে কাজ করে । প্রিন্ট করার সময় কাগজের উপর impack অর্থাৎ চাপ প্রয়োগ করে প্রিন্ট করে তাই একে ইমপ্যাক্ট প্রিন্টার বলে। 

Impact Printer কে তো দুটি ভাগে ভাগ করা হয় 

a. ডট মেট্রিক্স প্রিন্টার (Dot-Matrix Printers) : 

এই প্রিন্টার গুলো 1970 – 1980 দশকে বেশি ব্যবহার করা হতো। বর্তমানে এই ধরনের প্রিন্টার গুলো খুব কম ব্যবহার করা হয়। এই প্রিন্টারের মাধ্যমে প্রত্যেকটি অক্ষর বা শব্দ ডট ডট দিয়ে প্রিন্ট করা হতো প্রিন্টারের খরচাও অনেক কম হতো । তাহলে ডট মেট্রিক্স প্রিন্টার কি এই বিষয় টি আপনারা বুঝতে পারবেন ।

b. ডেইজি হুইল প্রিন্টার  (Daisy-Wheel Printers): 

এই ধরনের প্রিন্টারে একটি Wheel থাকে যেটি ফুলের পাপড়ির মত দেখতে। এই প্রিন্টারের Wheel এর প্রতিটি দন্ড তে অক্ষর বসানো থাকে। যখন ডিক্স টি বা Wheel টি ঘুরতে থাকে  যখন কাগজের মুখোমুখি হয় কোন চাপের মাধ্যমে কাগজে প্রিন্ট করে।  এই ধরনের প্রিন্টারে প্রিন্ট করতে বেশি সময় লাগে। পএই প্রিন্টার  গুলি প্রতি সেকেন্ডে 10-75 টি অক্ষর মুদ্রণ করে। 

 

 

2. নন ইমপ্যাক্ট প্রিন্টার (Non-Impact Printer) : 

এই ধরনের প্রিন্টার গুলো প্রিন্ট করার সময় কাগজের উপর কোন চাপ বা impact সৃষ্টি করে না। প্রিন্টারের সঙ্গে হেড কাগজের কোন যোগাযোগ  ছাড়াই ছবি, অক্ষর, চিত্র প্রিন্ট করে।  

Non-Impact Printer কে প্রধানত তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়।

a. লেজার প্রিন্টার (Laser printer) : 

Laser ব্যবহার করে প্রিন্ট করা হয় বলে এর নাম লেজার প্রিন্টার । সাদাকালো প্রিন্ট করার জন্য এই ধরনের প্রিন্টার সবথেকে বেশি ব্যবহার করা হয়। স্কুল কলেজ অফিস ইত্যাদী জায়গায় এই প্রিন্টার বেশি ব্যবহার করা হয অর্থাৎ অল্প সময়ে বেশি প্রিন্ট করার জন্য এই ধরনের প্রিন্টার ব্যবহার করা হয়। আশাকরি লেজার প্রিন্টার কি এই বিষয় টি বুজতে পারলেন। 

b. ইঙ্কজেট প্রিন্টার (Inkjet printer) : 

কালি ছিটিয়ে বা কালি স্প্রে করে প্রিন্ট করা হয় বলে এর নাম ইনজেক্ট প্রিন্টার। সাধারণত colour print ওর জন্য এই ধরনের প্রিন্টার সবথেকে বেশি ব্যবহার করা হয়। ইঙ্কজেট প্রিন্টার কি আশাকরি আপনরা এই বিষয়টি বুঝতে পারলেন।

c. থার্মাল প্রিন্টার (Thermal printer) : 

এই প্রিন্টার গুলিতে এমন এক ধরনের বিশেষ কাগজ ব্যবহার করা হয় যা তাপের সংস্পর্শে আসার সময় উত্তপ্ত পিন ব্যবহার করে প্রিন্ট করে। এরকম প্রিন্টারে গুলি সাধারণত ব্যাংকে , শপিংমলে , Atm অফিসে বেশি ব্যবহার করা হয়।

প্রিন্টার এর কাজ কি? 

প্রিন্টারের কাজ হল soft copy কে হার্ডকপি তে রূপান্তরিত করে। অর্থাৎ প্রিন্টার ডিজিটাল ডেটাকে কাগজে মুদ্রিত করে।

এছাড়া প্রিন্টারের মাধ্যমে কোন কিছু স্ক্যান করতে পারি এবং কপি করতে পারি ।

যেকোনো লেখাকে আপনারা খুব সহজেই প্রিন্টারের মাধ্যমে প্রিন্ট বা জেরক্স করতে পারবেন।

বিভিন্ন ধরনের ডিজাইন প্রিন্ট করার জন্য প্রিন্টার খুবই গুরুত্বপূর্ণ

আশা করি আপনারা প্রিন্টারের কাজ কি বা প্রিন্টার এর ব্যবহার এই বিষয়টি আপনারা বুঝতে পারলেন

 

 

প্রিন্টার ব্যবহারের নিয়ম : 

আপনারা প্রিন্টার যদি সঠিকভাবে ব্যবহার না করেন এবং প্রিন্টার কে যদি যত্ন করে না রাখেন তাহলে প্রিন্টার বেশিদিন টিকবে না । 

নতুন প্রিন্টার কিনে ফেলে রেখে দিলে চলবে না আপনাকে দিনে অন্তত একবার এটা চালু করতে হবে বা প্রিন্ট করতে হবে।

প্রিন্টার কে মেঝেতে রেখে দেবেন না টেবিল বা চেয়ারের উপর প্রিন্টার রাখবেন। এবং প্রিন্টারে ধুলোবালি যাতে না পড়ে সেজন্য প্রিন্টার কে ঢেকে রাখবেন।

FAQ : 

1. প্রিন্টার কোন ধরনের ডিভাইস ?

উত্তর : প্রিন্টার হলো আউটপুট ডিভাইস।

2. প্রিন্টারের দাম ২০২১ ?

উত্তর : প্রিন্টারের দাম মোটামুটি 5 হাজার রুপিজ থেকে শুরু । তবে 15000 টাকায় ভালো প্রিন্টার পেয়ে যাবেন।

3. কোন প্রিন্টার সবচেয়ে ভালো ? 

উত্তর : বর্তমানে লেজার প্রিন্টারের প্রচলন সবথেকে বেশি। আর কোম্পানির কথা বললে HP, EPSON, CANON, BROTHERS এগুলো বেশ জনপ্রিয়। 

আশা করি আপনারা আজকের আর্টিকেল থেকে প্রিন্টার কি ? প্রিন্টার মেশিনের দাম কত ২০২১ ? প্রিন্টার কত প্রকার ইত্যাদি বিষয়ে জানতে পারলেন।

প্রিন্টার বিষয় নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি কেমন লাগলো অবশ্যই আপনারা নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ধন্যবাদ।

1 thought on “প্রিন্টার কি ? প্রিন্টার এর কাজ কি? (what is printer in Bengali)”

Leave a Comment