মেমোরি কার্ড কি | মেমোরি কার্ডের বৈশিষ্ট্য । What is memory card in Bengali

 মেমোরি কার্ড আমরা কিন্তু কমবেশি প্রায় প্রত্যেকে ব্যবহার করে থাকি যেমন মোবাইল, ক্যামেরা, কম্পিউটারে ইত্যাদি ডিভাইসে। তো আপনারা অনেকেই জানেন না মেমোরি কার্ড কি। তো আজকের এই আর্টিকেলে আমি আলোচনা করব মেমোরি কার্ড কাকে বলে | মেমোরি কার্ড এর ব্যবহার | মেমোরি কার্ড কিভাবে তৈরি করা হয় ইত্যাদি বিষয়। 

আপনি যদি এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে memory card কি এ বিষয়ে সম্পূর্ণ তথ্য জানতে পারবেন।

মেমোরি কার্ড ফরমেট চাচ্ছে কি করব
Memory card bengali

মেমোরি কার্ড কি । What is memory card in Bangla

মেমোরি কার্ড হলো এক ধরনের স্টোরেজ ডিভাইস। যেখানে বিভিন্ন ধরনের ডেটা যেমন ফটো, ভিডিও, ফাইল ইত্যাদি সংরক্ষণ করা হয়। এটি সংযুক্ত ডিভাইস থেকে ডেটা এবং ফাইল সংরক্ষণ করার জন্য স্থায়ী এবং অ-উদ্বায়ী মাধ্যম প্রদান করে। 

মেমোরি কার্ড প্রধানত মোবাইল ফোন, ক্যামেরা, মিউজিক প্লেয়ার অর্থাৎ বহনযোগ্য ডিভাইসগুলোতে বেশি ব্যবহার করা হয়।

মেমোরি কার্ড কাকে বলে । Memory card meaning in Bengali

মোবাইল ফোন, ট্যাব, ক্যামেরা, ল্যাপটপ ইত্যাদি ডিভাইসে ফটো, ভিডিও, MP3 গান সংরক্ষণ করার জন্য যে স্টোরেজ ডিভাইস ব্যবহার করা হয় তাকে মেমোরি কার্ড বলে।

মেমোরি কার্ডে থাকা ডেটা গুলি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী ডিলিট করে দিতে পারেন। বর্তমানে বাজারে অনেক ধরনের মেমোরি কার্ড রয়েছে যেমন 2gb, 4gb, 8gb, 16gb, 32gb, 64gb ইত্যাদি। আপনার মেমোরি কার্ড এর gb যত বেশি হবে তত বেশি আপনি ডেটা সংরক্ষণ করে রাখতে পারবেন।

মেমোরি কার্ড কত প্রকার ও কি কি । Types of memory card

মেমোরি কার্ড বিভিন্ন ধরনের হয়। চলুন তাহলে মেমোরি কার্ডের প্রকার গুলো নিচে আলোচনা করি।

SD Memory Card :

SD মেমোরি কার্ড এর পূর্ণ রূপ ছিল Secure Digital Card যেখানে আমরা ডেটা স্টোর করার জন্য ব্যবহার করি যেমন, ফটো, ভিডিও, বিভিন্ন ধরনের ফাইল ইত্যাদি। এই ধরনের মেমোরি কার্ড গুলো আমরা মূলত মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ডিজেল ক্যামেরা, বিভিন্ন ধরনের স্পিকারে ব্যবহার করি।

MicroSD Memory Card :

 MicroSD হলো SD এর একটি ছোট রূপ এই মাইক্র এসডি মেমোরি কার্ড বর্তমানে প্রায় প্রত্যেকটি মোবাইলে ব্যবহার করা হয়।

মাইক্রোএসডি হল সিকিউর ডিজিটাল অ্যাসোসিয়েশন (এসডি অ্যাসোসিয়েশন) দ্বারা পরিচালিত ইন্ডাস্ট্রি standard স্টোরেজ প্ল্যাটফর্ম। বিভিন্ন হার্ডওয়্যার নির্মাতারা এটিক একটি অ-উদ্বায়ী ডেটা স্টোরেজ মাধ্যম হিসাবে গ্রহণ করেছে।

SDSC memory card :

SDSC এর পূর্ণরূপ হল Secure Digital Ultra Capacity. একে নরমাল মেমোরি কার্ডও বলা হয়। এই মেমোরি কার্ডের সাইজ 128mb থেকে 4gb পর্যন্ত হতে পারে। এই ধরনের মেমোরি কার্ড বাজারে 200 থেকে 350 টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন।

SDHC Memory Card :

HDHC এর ফুল ফর্ম হল Secure Digital High Capacity. এই ক্যাটাগরিতে যেসব মেমরি কার্ড রয়েছে তার সাইজ 4gb থেকে 32 gb পর্যন্ত হতে পারে। এই মেমোরি কার্ডের দাম নরমাল মেমরি কার্ডের দামের থেকে একটু বেশি হয়।

SDXC memory card :

SDXC এর ফুল ফর্ম হল Secure Digital Extended Capacity. এই ধরনের মেমোরি কার্ডের সাইজ সাধারণত 64gb থেকে 2gb পর্যন্ত হতে পারে। এটি খুব ছোট ফ্ল্যাশ মেমোরি। এর স্টোরেজ ক্ষমতা এবং দাম ও অন্যান্য মেমোরি তুলনায় অনেক বেশি। 

MicroSDHC Memory Card :

মাইক্রো এসডি কার্ড এর নতুন সংস্করণ টি 2007 সালে লঞ্চ করা হয়েছিল। যার স্টোরেজ ক্ষমতা 32gb হতে পারে এবং প্রতি সেকেন্ডে ডেটা ট্রান্সফারের স্পিড 10mb পর্যন্তও হতে পারে।  বর্তমানে এই ধরনের মেমোরি কার্ড স্মার্টফোন, কম্পিউটার স্পিকা,র ডিজিটাল ক্যামেরা ইত্যাদি ডিভাইস ব্যবহার করা হয়।

MicroSDXC Memory Card :

SDXC কার্ডের মতোই মাইক্রো SDXC কার্ডের স্টোরেজ ক্ষমতা 32 GB থেকে 2 TB এর মধ্যে ছিল। Microsoft SD এবং Microsoft SDHC-এর থেকে Microsoft SDXC-এর ডেটা ক্রমবর্ধমান স্পিড তুলনামূলক বেশি ।

মেমোরি কার্ড কিভাবে কাজ করে ?

প্রধানত মেমোরি কার্ড এক ধরনের solid state cheap. এই মেমোরি কার্ডের মধ্যে ছোট ছোট electrical circuit থাকে । যখন এই মেমোরি কার্ডটি পোর্টেবল ডিভাইস যেমন মোবাইল ডিজিটাল ক্যামেরা ল্যাপটপ ট্যাবলেট ইত্যাদি ডিভাইসে insert করি তখন small electric current ওই মেমোরি কার্ডে ট্রান্সফার হয়।

এভাবে মেমোরি কার্ডে small electric current  ট্রান্সফার হয় এবং  মোবাইল বা ল্যাপটপ মেমোরি কার্ডের deta রিড করতে পারে।

মেমোরি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা ?

Memory card ব্যবহারের অনেক সুবিধা রয়েছে যেগুলো নিম্নে আলোচনা করা হলো।

• মেমোরি কার্ড হল non volatile memory যেখানে ডাটা যেমন ফটো ভিডিও আরো অনেক কিছু ডেটা স্টোর করে রাখা হয়।

• মেমোরি কার্ড সাধারণত ছোট এবং হালকা হয় ফলে খুব সহজে একটি জায়গা থেকে অন্য জায়গায় বহন করে নিয়ে যাওয়া যায়।

• memory-card কম পাওয়ার ডিভাইস গুলো তে ব্যবহার করা যায়।

• memory-card খুব তাড়াতাড়ি access এর অনুমতি নিয়ে এবং কাজের সময় কোন শব্দ করে না।

• আপনি যদি একটি  কম স্টোরেজ যুক্ত মোবাইল ব্যবহার করেন তাহলে আপনারা খুব সহজে আপনার বাজেট অনুযায়ী একটা মেমরি কার্ড কিনে সেই মোবাইলে মেমোরি কার্ড লাগিয়ে নিতে পারেন। তাহলে আপনার স্টোরেজ নিয়ে কোন সমস্যা হবে না।

মেমোরি কার্ড ব্যবহারের অসুবিধা  :

মেমোরিকার্ড এর যেমন সুবিধা রয়েছে তেমনি ঠিক কিছু অসুবিধা রয়েছে। মেমোরিকার্ড এর কিছু অসুবিধা নিম্নে আলোচনা করা হলো। 

• এটিকে খুব সহজে ভেঙে ফেলা যায়।

• মেমোরিকার্ড খুলে রাখলে হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে কারণ এটি আকারে ছোটো।

• মেমোরি কার্ড ড্যামেজ হয়ে গেলে ডেটা রিকভার করা হয় না বললেই চলে।

• ফোন মেমোরি তুলনায় এটি স্লো।

ভালো মেমোরি কার্ড চেনার উপায় :

নতুন মেমোরিকার্ড কেনার সময় মেমোরি কার্ডের উপর ভালোভাবে লক্ষ্য করলে দেখবেন যে memory-card এর উপর কতগুলো সংখ্যা লেখা বা চিহ্ন দেখতে পাবেন। তো এই লেখাগুলো বা চিহ্নের মাধ্যমে কিন্তু আপনারা বুঝতে পারবেন কোন মেমোরিকার্ডটি ভালো বা memory-card এর ডাটা ট্রান্সফার স্পিড কত ।
 
আপনারা লক্ষ্য করলে দেখবেন যে মেমোরি কার্ডের উপরে গোল বৃত্তের মধ্যে কতগুলো সংখ্যা দেখতে পান তো ওই গোল বৃত্তের মধ্যে সংখ্যা যত বেশি হবে ডাটা ট্রান্সফারের স্পিড ততো বেশি হবে। অর্থাৎ নতুন মেমোরি কার্ড কেনার গোল বৃত্তের সংখ্যা যেনো বেশি হয় সেটি লক্ষ্য করে কিনবেন।
 
এছাড়া আপনারা যে মেমোরি কার্ডের গায়ে micro HD লেখা দেখতে পাবেন সে মেমোরিকার্ডে 128mb থেকে 2gb পর্যন্ত ডেটা স্টোর করা যাবে। 
 
যে মেমোরি কার্ডের গায়ে MicroSDHC লেখা দেখতে পাবেন সেটার স্টোরেজ ক্ষমতা 32gb পর্যন্ত হতে পারে।
 
এছাড়া আপনারা যে memory-card গায়ে MicroSDXC লেখা দেখতে পাবেন সেটার স্টোরেজ ক্যাপাসিটি হবে 32gb থেকে 2tb পর্যন্ত। 
 
মেমোরি কার্ড কেনার আগে এই সমস্ত বিষয়গুলি অবশ্যই মাথায় রাখবেন।

মেমোরি কার্ডের দাম কত

মেমোরি কার্ডের দাম নির্ভর করে আপনি কত জিবি মেমোরি কার্ড কিনতে চান সেটার উপর। তাও কিন্তু আপনাদের মনে প্রশ্ন জাগে ৪ জিবি মেমোরি কার্ডের দাম কত | 16 জিবি মেমোরির দাম কত  ইত্যাদী বিষয় মেমোরি কার্ডের দাম কতই নিয়ে একটি লিস্ট নিচে আপনাদেরকে দিয়ে দিলাম
 
 
4gb –  250 থেকে 300 রুপি 
 
8gb – 280 থেকে 330 রুপি 
 
16gb – 370 থেকে 450 রুপি 
 
32gb –  500 টাকার কাছাকাছি 
 
64gb –  650 – 750 রুপি 

কিছু ভালো মেমোরি কার্ড কোম্পানি

Memory-card কেনার সময় অবশ্যই আপনারা ভালো কোম্পানি দেখে কিনবেন। কিছু ভালো জনপ্রিয় মেমোরি কার্ড কোম্পানির লিস্ট নিচে দেওয়া হল
 
• SanDisk
 
• Samsung
 
• Hp
 
• Kingston
 
• Sony 
তো বন্ধুরা আশা করি আজকের আর্টিকেল থেকে আপনারা মেমোরি কার্ড কী ? মেমোরি কার্ড এর ব্যবহার | মেমোরি কার্ড এর বৈশিষ্ট্যমেমোরি কার্ড কিভাবে ঠিক করা যায় ইত্যাদি বিষয় জানতে পারলেন।
মেমোরি কার্ড কাকে বলে এই নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি কেমন লাগলো অবশ্যই নিচে থাকা কমেন্ট বক্সে আপনাদের মতামত জানাতে পারেন ধন্যবাদ।

Leave a Comment